তথ্য প্রযুক্তির সংক্ষিপ্ত সংবাদ-২

ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ আজ রয়েছে অ্যাপলের আইওয়ার্ক, ইমেইল পড়তে লেন্সের চোখ ও ইন্টারনেট থেকে কিভাবে আয় করা যাবে সে বিষয়ে কয়েকটি তথ্য প্রযুক্তির খবর।

বন্ধ হচ্ছে অ্যাপলের আইওয়ার্ক

জুলাইয়ের পর অ্যাপলের এ সেবাটি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আর এ ব্যাপারটি ব্যবহারকারীদের জানানোর জন্য অ্যাপলের পক্ষ থেকে সব আইওয়ার্ক ব্যবহারকারীর ইমেইল ঠিকানায় একটি মেইল পাঠানো হয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে আগামী ৩১ জুলাই থেকে আইওয়ার্কের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাবে এবং সেখানে থাকা কোন তথ্য, ফাইল আর পাওয়া যাবে না। ক্লাউড ভিত্তিকসেবা প্রদানের জন্য অ্যাপল বেশ আগে থেকেই চেষ্টা করে যাচ্ছে। ক্লাউডে প্রবেশের জন্য তারা গত দশকে কয়েকবার চেষ্টা করে। ব্যবহারকারীদের জন্য ব্যক্তিগত তথ্য অনলাইনে জমা করে রাখার সুবিধা প্রদানের জন্য আইটুলস থেকে শুরু করে ডট ম্যাক নিয়ে কাজ করে অ্যাপল। শেষ পর্যন্ত তা মোবাইল মি সেবা পর্যন্ত গড়ায়। কিন্তু অ্যাপলের মোবাইল মি ব্যবহারকারীদের মধ্যে তেমন সাড়া ফেলতে পারেনি। তাই অন্যান্য নতুন কি সুবিধা ব্যবহারকারীদের দেয়া যায় তা নিয়ে গবেষণা শুরু করে অ্যাপল। তখনই তারা ওয়েবভিত্তিক আইওয়ার্ক নিয়ে কাজ শুরু করে। আইওয়ার্কের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা প্রয়োজনীয় তথ্যসমূহ ইন্টারনেটে সংগ্রহ করে রাখার এবং অন্যের সঙ্গে আদানপ্রদান করার সুবিধা পেতেন। অনেকটা মাইক্রোসফটের শেয়ারপয়েন্ট এবং স্কাইড্রাইভ সেবার মতো। ২০০৯ সালের জানুয়ারিতে আইওয়ার্কের বেটা সংস্করণ ছাড়া হয়। এরপর থেকে মোবাইল মি এবং আইক্লাউডের মাধ্যমে অ্যাপল ব্যবহারকারীদের উন্নত ক্লাউড সেবা দেয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাই আইক্লাউডের জনপ্রিয়তা এবং তথ্য আদানপ্রদানের সুবিধা পর্যবেক্ষণ করে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ আইওয়ার্কের পেছনে সময় নষ্ট না করে আইক্লাউড নিয়ে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাই আপনি যদি আইওয়ার্কে কোন তথ্য জমা করে রাখেন তাহলে আপনার উচিত হবে যথাশীঘ্র সম্ভব তা নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া।

ইমেইল পড়তে লেন্সের চোখে

‘টার্মিনেটর’ ছবির মতোই ই-মেইল এবং টেক্সট মেসেজ ভেসে উঠবে চোখের সামনে। ফলে ডিভাইসের সাহায্য ছাড়াই লেন্সের মাধ্যমে ই-মেইল এবং টেক্সট মেসেজ সহজেই পড়া যাবে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই ডিভাইসটি হবে অনেকটা ব্ল–টুথ ইয়ারফোনের মতো। এতে চোখের লেন্সটি মোবাইল অথবা কম্পিউটারের সঙ্গে যুক্ত থাকবে। মোবাইলে কিংবা মেইলে কোন বার্তা এলেই তা চোখের সামনে ভেসে উঠবে। শুধু তাই নয় এ লেন্স কিছুক্ষণ পরপর রক্তচাপের অবস্থা, শরীরে গ্লুকোজের পরিমাণ এবং হূদস্পন্দনের মাত্রা ইত্যাদি জানিয়ে দেবে। ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটন এবং আলটো ইউনিভার্সিটির গবেষকরা পরিকল্পনাটিকে বাস্তবায়িত করতে দিনরাত কাজ করছেন। তারা বিভিন্ন মানুষের চোখে এই লেন্স দিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছেন। এই লেন্স এক পিক্সেল ক্ষমতাসম্পন্ন। পর্যায়ক্রমে এর পিক্সেল সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে এবং তা বিভিন্ন বয়সী মানুষের চোখে পরিয়ে পরীক্ষাও চালানো হচ্ছে। এই লেন্সটি তৈরি করা হয়েছে পাতলা স্বচ্ছ একটি চিপ দিয়ে। একে বলা হয় ‘সিঙ্গেল ব্ল–এলইডি’। যা যে কোন বার্তাকে আমাদের চোখের সামনে স্বচ্ছভাবে ফুটিয়ে তুলবে। তবে বিজ্ঞানীরা বিষয়টি নিয়ে কিছুটা সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন। তা হল চোখের কাছাকাছি লেখা বা কোন চিত্র ভেসে ওঠে তা অনেক ঝাপসা দেখায়। তবে এ সমস্যা সমাধানে বিজ্ঞানীরা লেন্সে ব্যবহার করছেন নতুন প্রযুক্তি ‘ফ্র্রেনসেল লেন্স’। এটি চোখের রেটিনা থেকে একটু দূরে থাকবে এবং লেন্সে ভেসে ওঠা ছবিকে স্পষ্টভাবে ফুটিয়ে তুলবে। তবে এ সেবাটি পেতে হলে আরও কিছু দিন অপেক্ষা করতে হবে। সূত্র : দ্য টেলিগ্রাফ

ইন্টারনেট থেকে টাকা আয়

ইন্টারনেট থেকে টাকা আয়ের কৌশল ও পদ্ধতি বিষয়ে দিনব্যাপী ওয়ার্কশপের আয়োজন করে ঢাকার হোস্টিং হেল্প২৪। সমপ্রতি এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। ওয়ার্কশপে গুগল অ্যাডসেন্স, অনলাইন মার্কেটিং ও অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় তা শেখানো হয়। বাংলাদেশী অ্যাড নেটওয়ার্ক (গুগল অ্যাডসেন্সের মতো) পয়সা ডট কম থেকে ঘরে বসে কিভাবে টাকা আয় করা যাবে সেসবও দেখানো হয়। এ ছাড়াও গেট অব ফ্রিল্যান্সার এবং ওডেক্স হাতে-কলমে শেখানো হয়। এই ওয়ার্কশপের কারণে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে বেশ উৎসাহ উদ্দিপনা চোখে পড়ে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...