স্তন ক্যান্সার আরোগ্যে জেনেটিক টেস্ট

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ স্তন ক্যান্সারে নারীদের মৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি। স্তন ক্যান্সার সঠিক কারণ জানা না গেলেও এটা প্রমাণ করা সম্ভব হয়েছে কয়েকটি মানব জিন স্তন ক্যান্সারের অন্যতম কারণ হিসাবে কাজ করে। জেনেটিক টেস্ট এর মাধ্যমে স্তন ক্যান্সার আক্রান্ত রোগী বিকল্প চিকিৎসা পেতে পারেন।


breast cancer

গবেষকরা BRCA1 এবং BRCA2 নামে দুটি জিন সনাক্ত করেছেন। জেনেটিক টেস্ট এর মাধ্যমে জিন দুটির কার্যকারিতা পরীক্ষা করা যায়। ইতোপূর্বে, Myriad Genetics নামের একটি প্রতিষ্ঠান এই জেনেটিক টেস্ট করতো। প্রতিষ্ঠানটি জিন দুটির পেটেন্ট আবেদন করেছিল যাতে অন্য কোন প্রতিষ্ঠান এই জেনেটিক টেস্ট সেবা না দিতে পারে। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রীম কোর্ট এ বিষয়ে একটি রায় দিয়েছে। সুপ্রীম কোর্ট জানান, জিন কখনো পেটেন্ট হয় না। কোর্টের রায় এর ফলে অন্য যে কোন প্রতিষ্ঠান জেনেটিক টেস্ট এর সেবাটি দিতে পারবে। অন্য একটি মেডিক্যাল টেস্টিং কোম্পানি Quest Diagnostics, এ ধরণের জেনেটিক টেস্ট করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

BRCA সংঘটিত ক্যান্সার সাধারণ ক্যান্সার নয়। Quest Diagnostics এর দেয়া তথ্য থেকে জানা যায়, প্রতি ৪০০ জন ক্যান্সার আক্রান্ত এর মধ্যে ১ জন এই ধরণের রোগী পাওয়া যায়। স্তন ক্যান্সারে আক্রান্তদের মধ্যে শতকরা ৫-১০ ভাগ এই ধরণের ক্যান্সার।

BRCA1 এবং BRCA2 হচ্ছে দুটি মানব জিন। জিন দুটির কাজ টুমের সুপ্রেশার প্রোটিন তৈরি করা। এই প্রোটিন ক্ষতিগ্রস্থ DNA এর জন্য সহায়ক হিসাবে কাজ করে। কোষের জেনেটিক ম্যাটেরিয়ালে সাম্যতা আনে। জিন দুটি ঠিক মত কাজ না করলে তথা সঠিক ভাবে প্রোটিন তৈরি না হলে DNA ক্ষতিগ্রস্থ হতে থাকে। কোষ অন্য ধরণের জেনেটিক পরিবর্তন এর দিকে ঝুঁকে যায় এবং তা ক্যান্সার হতে সহায়তা করে।
BRCA1 এবং BRCA2 জিন দুটির ক্রম পরিবর্তন এর ফলে স্তন ক্যানসার এবং জরায়ুর ক্যান্সার হতে পারে।

তথ্যসূত্র: লাইভসায়েন্স

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...