পদোন্নতি পাওয়া এক বিড়ালের কাহিনী!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মানুষের মতো বিড়ালও যে পদোন্নতি পেতে পারে তা সত্যিই অবিশ্বাস্য। কিন্তু তাই ঘটেছে। আজ আপনাদের জন্য রয়েছে পদোন্নতি পাওয়া এমন এক বিড়ালের কাহিনী!

Promoted a cat story

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, পদোন্নতি পেয়েছে যুক্তরাজ্যের ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারের হাডার্সফিল্ড রেলস্টেশনের একটি বিড়াল! ওই স্টেশনের সব ইঁদুর তাড়ানোর কৃতিত্বের জন্য কর্তৃপক্ষ বিড়ালটিকে জ্যেষ্ঠ পেস্ট কন্ট্রোলার হিসেবে পদোন্নতি দিয়েছে!

পদোন্নতি পাওয়া এই বিড়ালটি ফেলিক্স। ২০১১ সালে প্রথম এই বিড়ালটি হাডার্সফিল্ডে যায়। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ৯ সপ্তাহ। তারপর প্রায় ৫ বছর স্টেশনটিকে ইঁদুরমুক্ত করতে প্রচুর খেটেছে এই বিড়ালটি। বর্তমানে ইন্টারনেটে রীতিমতো তারকাখ্যাতি অর্জন করেছে বিড়াল ফেলিক্স। এখন দুনিয়া জোড়া তার খ্যাতি! ফেসবুকে এই বিড়ালটির নামের পেজে ভক্তসংখ্যা গত সপ্তাতে ৩ হাজার হতে প্রায় ৩০ হাজারে পৌঁছায়!

জানা যায়, নতুন এই পদে দায়িত্ব পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নিজের নামের ব্যাজসহ নতুন পোশাকও পেয়েছে বিড়াল ফেলিক্স। গত জানুয়ারির শেষ দিকে ওই পদোন্নতির পর হতে ইন্টারনেটে ফেলিক্সের ভক্ত-অনুসারীর সংখ্যা যেনো পাল্লা দিয়ে বাড়ছে!

খবরে জানা যায় যে, ইঁদুর দমনের জন্য ফেলিক্সকে হাডার্সফিল্ড স্টেশনে নিয়োগ দিয়েছিল ট্রান্সপেনি এক্সপ্রেস নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এরপর সে তার কাজের মাধ্যমে ধীরে ধীরে সবার মন জয় করে নেয়। কিন্তু ফেলিক্সের সঙ্গে কাজ করেন—এমন এক ব্যক্তি বলেছেন, বিড়ালটি যে খ্যাতি পেয়েছে, পুরোটা তার প্রাপ্য নয়। সে সবার নিকট হতে মনোযোগ ও পুরস্কার পাচ্ছে।

স্থানীয় সংবাদপত্র দ্য হাডার্সফিল্ড ডেইলি এই পদোন্নতি পাওয়া বিড়ালটিকে নিয়ে একটি বিশেষ আর্টিকেল করেছে। তারা লিখেছে, স্টেশনটিতে টিকিট কাউন্টারের বেষ্টনী তৈরি করার সময় ফেলিক্সের চলাফেরার জন্য একটি বিশেষ স্থানও রাখা হয়েছে। এভাবে একটি বিড়াল সত্যিই মানুষের মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ার বদৌলতে সে এখন এক মহা তারকা!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...