ভারতের ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিম জেলে বসেও টাকা আয় করছেন!

গুরমিত রাম রহিম সিংহ ইনসান দুই সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের অভিযোগে ২০ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কথায় আছে ‘ঢেকি নাকি স্বর্গে গেলেও ধান বানে’। ঠিক সেই কথাটি যেনো ভারতের এই কথিত ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিেমের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। ভারতের এই ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিম নাকি জেলে বসেও টাকা আয় করছেন!

ভারতের আলোচিত ভণ্ড ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিম সিং ইনসান জেলে বসেও নাকি অর্থ আয় করেন। অবশ্য তা ধর্মের নামে ভণ্ডামি করে বা মানুষ ঠকিয়ে নয়; জেলে বসে অদক্ষ শ্রমিক হিসেবে কাজ করে রাম রহিম দৈনিক ২০ টাকা করে আয় করেন।

ডেরা সাচ্চা সওদা’র সাবেক প্রধান গুরমিত রাম রহিম সিংহ ইনসান দুই সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের অভিযোগে ২০ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করছেন। রাম রহিমকে রাখা হয়েছে সুনারিয়া (রোহতক) জেলে।

জানা যায়, জেলে আসার পর অবসাদে ভুগতেন রাম রহিম। কখনও তারমধ্যে দেখা যেতো প্রবল অস্থিরতা। সেখান থেকেই তিনি বেরিয়ে আসার চেষ্টা করছেন।

জেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এখন তিনি নিয়মনিষ্ঠ এক ভদ্র মানুষ। আগের রাম রহিম আর এখনকার রাম রহিমের মধ্যে আকাশ-পাতাল তফাত দেখা যাচ্ছে। বাবার চেনা জেল্লা নাকি কেড়ে নিয়েছে কারাগারের এই বন্দি জীবন। তার দাড়ি এখন ধূসর রঙের। জেলের খামারে ফসল ফলানোর জন্য প্রতিদিনের হাড়ভাঙা খাটুনিতেও তার আপত্তি নেই! রংচঙে জামাকাপড় ছাড়া যার কখনও চলতো না, অথচ এখন তার পরনে সাদা কুর্তা ও পায়জামা। অনিয়মকেই যিনি নিয়ম করে নিয়েছিলেন, এখন রীতিমতো জেলখানার নিয়মের মধ্যেই কাটে তার এই বন্দি জীবন।

উল্লেখ্য, দুই অনুসারীকে ধর্ষণের দায়ে ভারতীয় আদালতে দোষী সাব্যস্ত হয়ে গত বছরের ২৫ আগস্ট হতে জেলে রয়েছেন বিতর্কিত এই ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিম।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...