অপু বিশ্বাস এমপি হয়েই প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিজেকে প্রমাণ করতে চান!

বিনোদন জগতের মধ্যে সাম্প্রতিক সময় রাজনীতিতে সম্পৃক্ততা দেখা যায় বেশ লক্ষণীয়ভাবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিনোদন জগতের মধ্যে সাম্প্রতিক সময় রাজনীতিতে সম্পৃক্ততার যেনো হিড়িক লেগেছে। এমন এক পরিস্থিতিতে এবার চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস বলেছেন, এমপি হয়েই প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিজেকে আমি প্রমাণ করবো।

বিনোদন জগতের মধ্যে সাম্প্রতিক সময় রাজনীতিতে সম্পৃক্ততা দেখা যায় বেশ লক্ষণীয়ভাবে। এমন এক পরিস্থিতিতে এবার চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস বলেছেন, এমপি হয়েই প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিজেকে আমি প্রমাণ করবো। এদিকে প্রধানমন্ত্রীও চিত্রজগত ও খেলোয়াড়সহ সংস্কৃতি মনা মানুষ বিশেষ করে তরুণদের বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। এর কারণ হলো গতানুগতিক ধারায় রাজনীতিবিদদের মধ্যে ‘অশুভ কিছু লক্ষণ’ দেখা যায়। কিন্তু এদের মধ্যে তরুণ উদীয়মানদের মধ্যে সে সব কোনো লক্ষণ নেই। তারা এই দেশকে এগিয়ে নিতে পারবেন। সে কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন সময় তাদেরকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এমন কি অনেক পুরোনো রাজনীতিবিদ থাকা সত্বেও এদেরকে প্রাধান্য দিয়েছেন। সে কারণে এবার মাশরাফি বিন মর্তূজার মতো ক্রিকেটার সংসদ সদস্য হতে পেরেছেন। এর একটি ভালো দিক হলো তরুণ, সৎ ও নিষ্ঠাবানরা দেশের জন্য কাজ করতে পারবেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রচারে অংশ নিয়ে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস সংসদে প্রতিনিধিত্ব করতে আগ্রহী। তিনি সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি হতে চান বলে সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়।

এবারের সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষে একঝাঁক টিভি-চলচিত্র তারকা প্রচারণা চালিয়েছেন। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ঘুরে ঘুরে অন্য সকলের সঙ্গে নৌকার পক্ষে প্রচারণা চালিয়েছিলেন অপু বিশ্বাস নিজেও।

বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন তিনি। ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর চা-চক্রের মতো অনুষ্ঠানেও।

এবার সংরক্ষিত নারী আসনে সাংসদ হবার মনোবাসনা জানিয়েছেন এই অভিনেত্রী। তিনি বলেন, ‘আমি সংরক্ষিত আসনের জন্য মনোনয়ন পেতে চাই। এই দায়িত্ব পালন করার মতো যোগ্যতা আমার রয়েছে। আমি নিজে প্রচণ্ড পরিশ্রম করতে পারি। সেইসঙ্গে রয়েছে অভিজ্ঞতাও। নারী ও শিশুদের জন্য অনেক দিন ধরেই কাজ করে আসছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি আমার ওপর আস্থা রাখেন তাহলে অবশ্যই আমি তার মূল্যায়ন করবো।’

নিজের রাজনৈতিক দর্শন নিয়ে অপু আরও বলেন, ‘আমি সব সময় পারিবারিকভাবেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনীতির আদর্শে বেড়ে উঠেছি। তার রাজনৈতিক জীবন আমার ছোটবেলা থেকেই প্রভাবিত করেছে। যদিও রাজনীতিতে আমি সক্রিয় নই। এবারই প্রথমবার রাজনীতির মাঠে ছিলাম নৌকার প্রচারণা চালানোর জন্য। এছাড়াও নানারকম সামাজিক কার্যক্রমের সঙ্গেও আমি জড়িত।’

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...