The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

জেনে নিন পরিষ্কারক হিসেবে লেবুর নানা ব্যবহার

পরিষ্কারক হিসেবে সকলের জনপ্রিয় এই লেবুর বেশ খ্যাতি রয়েছে

দি ঢাকা টাইমস ডেস্ক।। বাজারে আমরা যে সকল পরিষ্কারক দেখতে পাই তার বেশির ভাগই নানা রাসায়নিক উপাদানের সংমিশ্রণে তৈরি। তাই এই উপাদানগুলো আমাদের উপকারের পাশাপাশি কিছুটা ক্ষতিও করে। লেবু সবার পরিচিত একটি নাম। এই লেবুর যেমন পুষ্টিগুণ রয়েছে, তেমনি পরিষ্কারক হিসেবেও এর বেশ খ্যাতি রয়েছে। আজ আমরা পরিষ্কারক হিসেবে লেবুর নানা ব্যবহার সম্পর্কে জানবো।

জেনে নিন পরিষ্কারক হিসেবে লেবুর নানা ব্যবহার 1

১। ঝোল জাতীয় খাবার মাইক্রোওয়েভে গরম করার সময় কিছু খাবার বা ঝোল এর ভেতরের অংশে ছিটে গিয়ে লেগে যায়। বার বার গরম করার ফলে তা এমন শক্ত হয় যা সহজে উঠতে চাই না। এমন সমস্যায় আপনি একটি বাটিতে মাঝারি সাইজের একটি লেবুর রস চিপে নিন। তার মধ্যে আধা কাপ পানি মিশিয়ে ১ থেকে দুই মিনিট মাইক্রোওয়েভে গরম করুন।এই গরম করার সময়। পানি এবং লেবুর রস বাষ্প হয়ে মাইক্রোওয়েভের ভেতরে ছড়িয়ে যাবে। ফলে এর ভেতরে শক্ত হয়ে লেগে থাকা এই খাবারের উপাদানগুলো অনেক নরম হয়ে যাবে। এখন একটি নরম কাপড় দিয়ে আলতো করে মুছে নিলেই ওই লেগে থাকা খাবার বা ঝোল সহজেই পরিষ্কার হয়ে যাবে।

২।  জানালার গ্লাস, কাঠ বা হার্ডবোর্ডের কোন জিনিস পরিষ্কার করার জন্য সাধারণত বাজার থেকে গ্লাস ক্লিনার জাতীয় কিছু ক্রয় করা হয়। আজ থেকে এই কাজগুলো করার জন্য নিজেই বাসায় প্রাকৃতিক পরিষ্কারক তৈরি করে নিন। এর জন্য একটি বোতলে এক কাপ পানি, আধা কাপ ভিনেগার এবং একটি মাঝারি সাইজের লেবুর রস নিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এখন এই মিশ্রিত উপাদান ৫ থেকে ৭ দিন রেখে দিন। এর ফলে এই তিনটি উপাদানের বিক্রিয়ায় একটি বিশেষ ধরণের পরিষ্কারক তৈরি হবে। এখন এই উপাদান। একটি স্প্রে বোতলে ভরে গ্লাস, কাঠ বা বোর্ডের নানা জিনিস পরিষ্কার করতে পারবেন।

৩। নানা শাঁক সবজি কাটার জন্য সাধারণত রান্না ঘরে চপিং বোর্ড ব্যবহার করা হয়। বার বার কাটাকাটির কাজে এগুলো ব্যবহার করার ফলে এটি অনেক সময় ময়লা হয়ে যায়। অন্য উপাদান দিয়ে পরিষ্কার করার চেয়ে লেবুর ব্যবহার অনেকটা নিরাপদ। এর জন্য চপিং বোর্ডের উপর প্রথমে লবণ ঢেলে তার উপর পর্যাপ্ত ল্বুর রস ঢেলে দিন। এখন কিছু একটা দিয়ে লেবুর রস মিশ্রিত লবণ ভাল করে ঘষতে থাকুন। ভাল ফল পেতে ৫ থেকে ৭ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। এখন আপনার চপিং বোর্ড জীবাণুমুক্ত এবং খব ভাল পরিষ্কার হয়ে যাবে।

৪।  চুলের খুশকি দূর করতে আমরা নানা উপাদান ব্যবহার করে থাকি। তবে কোন কিছুতেই যেন ভাল ফল পাওয়া যায় না। এই সমস্যর সমাধানে আপনি লেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন। শ্যাম্পু করার পর কিছুটা লেবুর রস সমস্ত চুলে মাখিয়ে নিন। মাসে ৪-৫ বার এমনভাবে লেবুর রস মাখলে চুলের খুশকি দূর হয়ে যায়।

৫। রান্নাঘরের সিংকে লবণ ছিটিয়ে তার উপর লেবুর রস দিয়ে ঘষে সিংক পরিষ্কার করুন। লেবু-লবণের মিলিত প্রয়াসে সিংকের জীবাণু দূর হওয়ার পাশাপাশি সঙ্গে থাকা পানির দাগও দূর হয়ে যাবে। রেখে যাবে সুন্দর একটি সুবাস যা নিঃসন্দেহে রান্নাঘরে একটা ইতিবাচক পরিবর্তন আনবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...