The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

চীনের সঙ্গে দ্বিতীয় বর্ডার পয়েন্ট খুলে দিয়েছে নেপাল

৮ এপ্রিল খুলে দেওয়া হয় টাটোপানি সীমান্ত। এবার খোলা হয়েছে রসুয়াগাড়ি সীমান্ত

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ চীনের সঙ্গে বাণিজ্যের জন্য নিজের সীমান্ত খুলে দিয়েছে নেপাল। নির্মাণ কাজের কাঁচামাল, জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং বিমানবন্দর নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহের জন্য সীমান্ত খুলে দেওয়া হয়।

চীনের সঙ্গে দ্বিতীয় বর্ডার পয়েন্ট খুলে দিয়েছে নেপাল 1

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্যে জানা যায়, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য চীনের সঙ্গে নিজেদের দুটি সীমান্ত টাটোপানি ও রসুয়াগাড়ি বন্ধ করে দেওয়া হয়। ৮ এপ্রিল খুলে দেওয়া হয় টাটোপানি সীমান্ত। এবার খোলা হয়েছে রসুয়াগাড়ি সীমান্ত। নেপাল চীনের মধ্যে এক তরফা সরবরাহের জন্য বিশেষ চুক্তিও হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতেই সীমান্ত খুলে দেওয়া হয়। তবে কাঠমান্ডু পোস্টের প্রতিবেদনে ঠিক কবে সীমান্ত খুলে দেওয়া হবে, তার কোনো উল্লেখ নেই।

রাসুয়া এলাকার মুখ্য জেলা আধিকারিক হরি প্রসাদ পন্ত সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, দুই দেশের মধ্যে সদর্থক আলোচনার পর সীমান্ত খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গত বুধবার এই আলোচনা হয়। দুই দেশের মধ্যে এই আলোচনা হয় মৈত্রী ব্রিজ কিংবা ফ্রেন্ডশিপ ব্রিজে। চুক্তি অনুযায়ী চীনের কার্গো ট্রাক নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী নেপাল সীমান্তে নামিয়ে দেওয়া হবে।

চীনের কার্গো ট্রাক ফিরে গেলে নেপালি চালক ও খালাসিরা সেইসব পণ্য আবার দেশের ভিতরে নিয়ে আসবে। প্রাথমিকভাবে দিনে মোট ৪টি ট্রাক যাতায়াত করবে। পরবর্তীতে ধীরে ধীরে সেই সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে। ভৈরবাহা এবং পোখারা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর তৈরির কাজও দ্রুত গতিতে চালিয়ে যাচ্ছে নেপাল।

জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময় এই কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা থাকলেও, লকডাউনের জন্য সময়সীমা বেড়ে গেছে। চীনের সঙ্গে নতুন করে সখ্যতা হওয়ার পর ভারতের সঙ্গে দূরত্ব বাড়াচ্ছে নেপাল।

ভারতের সেনাপ্রধান এমএন নারাভানে আগেই সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন নেপালের দ্বিচারিতার পিছনে বেজিংয়ের বড় ধরনের ভূমিকা রয়েছে। সেই সন্দেহকে সিলমোহর দিয়েই একের পর এক ভারতবিরোধী পদক্ষেপ নিচ্ছে কাঠমান্ডু।

জানা গেছে, নেপালের রেডিও স্টেশনগুলি সীমান্ত জুড়ে ভারত বিরোধী প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছে। কালাপানি, লিপুলেখ এবং লিম্পিয়াধুরা যে নেপালেরই অংশ এই বিষয়ে ভারত যে মিথ্যা দাবি করছে, সেই বক্তব্য তুলে ধরে প্রচার চালাচ্ছে নেপালের রেডিও স্টেশনগুলি তাদের রেডিওর মাধ্যমে- এমন খবর পাওয়া গেছে।

ভারত নেপাল সীমানা লাগোয়া পিথোরাগড় দারচুলা মহকুমার দান্তু গ্রামে বসবাসকারী জনৈক বাসিন্দা জানিয়েছেন বেশ কয়েকটি নেপালি রেডিও স্টেশন ভারত বিরোধী বার্তা প্রচার করে আসছে বিভিন্ন নেপালি গানের সম্প্রচারের ফাঁকে ফাঁকে। নেপালি নেতাদের ভারত বিরোধী বক্তব্যও প্রচার করা হচ্ছে বলে খবরে জানা যায়। নয়া নেপাল ও কালাপানি রেডিও নামে দুটি স্টেশন এই প্রচার- প্রচারণা চালাচ্ছে বলে খবর বেরিয়েছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...