The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মুক্তির দিনই রেকর্ড গড়লো সুশান্তের ‘দিল বেচারা’

করোনা ভাইরাসের কারণে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়া সম্ভব হয়নি এই ছবিটির। তবে এতে সিনেমার জনপ্রিয়তায় মোটেও ভাটা পড়েনি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুক্রবার মুক্তি পায় সদ্য প্রয়াত বলিউড তারকা সুশান্ত সিংয়ের রাজপুতের শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’। মুক্তির দিনই ছবিটি রেকর্ড গড়লো।

মুক্তির দিনই রেকর্ড গড়লো সুশান্তের ‘দিল বেচারা’ 1

করোনা ভাইরাসের কারণে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়া সম্ভব হয়নি এই ছবিটির। তবে এতে সিনেমার জনপ্রিয়তায় মোটেও ভাটা পড়েনি। এই করোনাকালেও মুক্তির দিনেই ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে রেকর্ড গড়েছে ছবিটি।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ডিজনি প্লাস হটস্টারে মুক্তি পেয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুত ও সঞ্জনা সাংঘির চলচ্চিত্র ‘দিল বেচারা’।

জানা যায়, IMDB এই ছবিটির রেটিং দিয়েছে দশে ৯.৯। অর্থাৎ দশে দশই পেয়েছে এই সিনেমাটি। এমন একটি রেকর্ড ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে এই প্রথম।

শুক্রবার সুশান্তের অভিনয় ও তাকে শেষবার স্ক্রিনে দেখার এক বিষাদময় আনন্দে মেতেছিলেন পুরো ভারতীয়রা। মুক্তির ২ ঘণ্টা পরেই দর্শক সংখ্যার চাপে ক্রাশ করেছিলো হটস্টার।

টুইট করে এই খবরটি জানিয়ে পরিচালক হান্সাল মেহতা জানিয়েছেন, সাড়ে ৭টা বাজতেই ঝড়ের গতিতে দর্শক সংখ্যা বেড়ে যায় হটস্টারে। মুক্তির ২ ঘণ্টা পরেই ক্রাশ করে যায় হটস্টার। আগেই বোঝা গিয়েছিল যে, ছবিটি সিনেপ্রেমীদের হৃদয়ে স্থান করে নেবে। ট্রেলারই রেকর্ড গড়েছিলো।

ভারতের সংবাদ মাধ্যম নিউজ এইটিন জানিয়েছে, মুক্তির পূর্ব হতেই সুশান্তের সহকর্মী, বন্ধু, পরিবার ও সর্বোপরি ভক্ত-অনুরাগীরা সকাল হতেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে ছিলেন ‘দিল বেচারা’ দেখার জন্য। তখন হটস্টারে অবমুক্ত হতেই ঝাঁপিয়ে পড়েন তারা। সেই কারণে হটস্টার ক্রাশ করে। ‘দিল বেচারা’ দেখার পর সুশান্তের প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন নেট দুনিয়ার মানুষজন।

প্রায় সবার একই বক্তব্য দিয়েছেন, ভার্সেটাইল অভিনেতার সংজ্ঞা দিতে হলে এরপর হতে বলিউডপ্রেমীরা অবশ্যই সুশান্ত সিং রাজপুতের নাম নেবেন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...