The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

যেভাবে কম্পিউটারের সকল ডাটা নতুন হার্ড ড্রাইভে স্থানান্তর করবেন [টিউটোরিয়াল]

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে বিশাল বিশাল সাইজের হার্ড ড্রাইভ। অনেকেই আগের ছোট সাইজের হার্ড ড্রাইভ বদলিয়ে বড় সাইজের হার্ড ড্রাইভ কম্পিউটারে লাগাতে চাইছেন। আজ আপনাদের জন্য আমাদের টিউটোরিয়াল বিভাগে থাকছে যেভাবে আপনি আপনার কম্পিউটারের হার্ড ড্রাইভের সকল ডাটা এবং অপারেটিং সিস্টেম না বদলিয়েই নতুন ড্রাইভে নিয়ে নিতে পারবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত।


P1090097

ধরুন আপনি চাইছেন আপনার কম্পিউটারে সংযুক্ত থাকা হার্ড ড্রাইভ পরিবর্তন করে অপেক্ষাকৃত বড় ডাটার হার্ড ড্রাইভ সংযুক্ত করবেন। তবে এটা করার আগে আপনাকে কিছু কাজ করতে হবে। সেই সব কাজের বিষয়েই আমাদের আজকের আলট্রা টিউটোরিয়াল।

আপনাকে যা যা করতে হবেঃ

১) আপনাকে প্রথমেই যা করতে হবে তা হচ্ছে সদ্য বাজার থেকে কিনে আনা হার্ড ড্রাইভটি আপনার কম্পিউটারে সংযুক্ত করে নিতে হবে।

২) আপনি কি জানেন না কিভাবে হার্ড ড্রাইভ সংযুক্ত করবেন? বিষয়টি খুব সহজ। আপনার  কম্পিউটারে আগে যে হার্ড ড্রাইভ সংযুক্ত আছে যে প্যানেলে সেই প্যানেলের সাথেই আরেকটি বাড়তি প্যানেল থাকবে। আপনি ঐ প্যানেলের সাথে SATA-USB adapter ক্যাবল দিয়ে আপনার হার্ড ড্রাইভটি সংযুক্ত করুন।

HD_Removal_6

৩) এবার কম্পিউটার চালু করলেই দেখতে পাবেন আপনার কম্পিউটারে দুইটি হার্ড ডাইভ সংযুক্ত হয়ে গেছে। এখন মনে রাখবেন BIOS boots যেন অবশ্যই পুরনো হার্ড ডাইভেই থাকে কারণ সেখানেই আপনার অপারেটিং সিস্টেম চলছে।

৪) এবার আপনাকে যা করতে হবে আপনার পুরোনো হার্ড ড্রাইভ থেকে সকল তথ্য ক্লোন করে নিতে হবে। ঘাবড়াবেননা। ক্লোন করার জন্য অসংখ্য সফটওয়্যার রয়েছে তবে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং ফ্রি সফটওয়্যার হচ্ছে EaseUS Todo Backup Free. এটি ইন্সটল করে নিন আপনার পুরোনো হার্ড ড্রাইভে।

11

৫) EaseUS Todo Backup Free ইন্সটল করে এটি চালু করুন। এবার দেখতে পাবেন এর বাম পাশে রয়েছে বেশ কিছু অপশন। সেখান থেকে ক্লোন অপশনে ক্লিক করে ডিস্ক ক্লোনে ক্লিক করুন এবং ধাপে ধাপে এগিয়ে যান।

৬) সব শেষে ক্লোন শেষ হলে আপনি দেখতে পাবেন আপনার নতুন ড্রাইভে সব কপি হয়ে গেছে পুরোনো ড্রাইভ থেকে। এখানে আপনি চাইলে আপনার ইচ্ছে মত ড্রাইভ পার্টিশন করে নিতে পারবেন।

12

৭) আপনি যদি পার্টিশন করার জন্য ‘Proceed.’করেন তবে এটি সম্পূর্ণ হতে কিছু সময় লাগবে সাধারণত ঘন্টা খানেক। এই সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

৮) পার্টিশন হয়ে গেলে কম্পিউটার বন্ধ করুন।

৯) হ্যাঁ হয়ে গেলো, এবার আপনার পুরোনো ড্রাইভ কম্পিউটার থেকে খুলে নিন এবং নতুনটি পুরোনো টির যায়গায় বসিয়ে দিন।

১০) কম্পিউটার চালু করুন, মনে রাখবেন প্রথমবার কম্পিউটার চালু হতে কিছু সময় লাগবে এতে ঘাবড়াবেন না। পরবর্তীবার থেকে কম্পিউটার দ্রুত বন্ধ এবং চালু হবে।

কেমন লাগলো আমাদের টিউটোরিয়াল? হ্যাঁ ভালো লাগলে কমেন্টে জানান এবং অন্য কোন বিষয়ে যদি আপনাদের টিউটোরিয়াল জানার থাকে তাও আমাদের জানান।

ধন্যবাদান্তেঃ দিটেকজার্নাল

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...