নাসার এক গবেষক, পাইলট, লেখক যার বয়স মাত্র ১৭!

This August 2015 photo provided by Shu Chien shows her son Moshe Kai Cavalin at their home in San Gabriel, Calif. Cavalin earned a bachelor’s in math from UCLA at age 15, and is taking online classes through Brandeis University, near Boston, towards a master’s in cybersecurity. He’s also working for NASA, where he is developing aircraft tracking technology. (Shu Chien via AP)

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মাত্র ১৭ বছর বয়সে তিনি বিশ্বের খ্যাতিমান গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসার গবেষক, পাইলট ও লেখক হয়েছেন। অর্জন করেছেন দু’টি স্নাতক ডিগ্রি, চলছে স্নাতকোত্তর। নাম মোশে কাই কাভালিন।

This August 2015 photo provided by Shu Chien shows her son Moshe Kai Cavalin at their home in San Gabriel, Calif. Cavalin earned a bachelor’s in math from UCLA at age 15, and is taking online classes through Brandeis University, near Boston, towards a master’s in cybersecurity. He’s also working for NASA, where he is developing aircraft tracking technology. (Shu Chien via AP)

এই প্রতিভাধর তরুণ ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান গ্যাব্রিয়েলের বাসিন্দা। কাজ করছেন নাসায়। মার্শাল আর্টেও তুখোড় এই মেধাবি তরুণ। পুরস্কারও পেয়েছেন অনেক। চালাতে পারেন বিমানও। অবাক হওয়ার মতো ব্যাপার। শুধু তাই নয়, তার লেখা দুটি বইও প্রকাশ হয়েছে।

মোশে কাই কাভালিন বিমান নিয়ে আকাশে উড়তে পারে। তবে একা গাড়ি চালানোর আইনি ছাড়পত্র এখনও পায়নি, বয়স ১৮ হয়নি সেকারণে। মোশে কাই কাভালিন প্রথম ডিগ্রি পেয়েছিলেন মাত্র ১১ বছর বয়সে, কমিউনিটি কলেজ হতে। তার ঠিক ৪ বছরের মাথায় ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটি হতে আবারও স্নাতক করেন অঙ্কে। বর্তমানে অনলাইনে ব্র্যান্ডেইস বিশ্ববিদ্যালয়ে সাইবার সিকিওরিটি বিষয়ে স্নাতকোত্তর করছেন। বিমান এবং ড্রোনের নজরদারি প্রযুক্তির উদ্ভাবনে নাসাকে সাহায্য করার ডাক পড়েছে মোশে কাই কাভালিনের।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, যিনি এতো গুণের অধিকারী, তিনি তারপরও সাধারণের মতোই নিজেকে মনে করেন। নাসার ফ্লাইট রিসার্চ সেন্টারে গবেষণারত এই তরুণের বক্তব্য হলো, ‘আমি বিশেষ কিছুই করিনি। যা করেছি বা যেটুকু করেছি, সেই কৃতিত্বও আমার মা-বাবার। প্রেরণা, অনুপ্রেরণা- সবটাই তাদের নিকট হতে পাওয়া। আমি শুধু চেষ্টা করেছি, সবসময় আমার সেরাটা উপহার দিতে।’

মোশে কাই কাভালিনের মা জন্মসূত্রে তাইওয়ানের নাগরিক। আর বাবা ব্রাজিলিয়ান। তারা দু’জনে মনে করেন, সন্তান জিনিয়াস কিছু নয়। সবটাই তার মধ্যে এসেছে খুব স্বাভাবিকভাবে। তার একসময়কার অঙ্কের শিক্ষক ড্যানিয়েল জজের বক্তব্য ছিল, ও খুব পরিশ্রম করতে পারে। কাওকে ওর মতো পরিশ্রম করতে দেখিনি।’ এমন নানা গুণের অধিকারী এই তরুণ এখন শুধুই এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...