ট্রাম্পের মনোনয়ন আটকাতে রিপাবলিকানদের নানা কৌশল!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মনোনয়ন আটকাতে রিপাবলিকানরা নানা কৌশল নিচ্ছেন। তাকে ঠেকাতে রিপাবলিকান দলের নেতারা নতুন এক কর্মসূচিও নাকি হাতে নিয়েছেন।

Triumph

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, দলের ভেতরে ট্রাম্প বিরোধীরা ১০০ দিনের একটি কর্মসূচিও হাতে নেওয়া হয়েছে। উইসকনসিন অঙ্গরাজ্যে ৫ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় প্রাইমারি হতে পুরো গ্রীষ্ম মৌসুমজুড়ে চলবে তাদের এই ট্রাম্প বিরোধী অভিযানটি। বিশ্লেষকরা একে ‘রাজনৈতিক গেরিলা যুদ্ধ’ হিসেবে দেখছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পের অগ্রযাত্রা রুখে দিতেই মূলত এককাট্টা হচ্ছেন রিপাবলিকানরা।

জানা যায়, টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ এবং ওহাইওর গভর্নর টেড ক্রুজকে সামনে রেখে তারা প্রথমে নিউইয়র্কের ধনকুবের ট্রাম্পের রাশ টেনে ধরার উদ্যোগ নিতে যাচ্ছেন। তারা বলছেন যে, প্রয়োজনে তৃতীয় কোন প্রার্থীকে তারা সমর্থন দেবেন। তারা প্রতিটি ডেলিগেটের নিকটে পৃথকভাবে গিয়ে হলেও ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তাদের রাজি করানোর চেষ্টা করবেন। ট্রাম্পকে আটকাতে প্রয়োজনে তারা একাধিক কৌশলের আশ্রয় নেবেন। তারা এটিকে রাজনৈতিক গেরিলা যুদ্ধ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

এদিকে সম্ভাব্য তৃতীয় প্রার্থী হিসেবে ওকলাহোমার সাবেক সিনেটর টম কোলবার্ন ও টেক্সাসের সাবেক গভর্নর রিক পেরির নাম চলে আসছে। কোলবার্ন সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ট্রাম্পকে অবশ্যই আটকানো উচিত। রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিটি অঙ্গরাজ্যের জনপ্রতি প্রদত্ত ভোটগুলো সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতেই ডেলিগেট ভোটে পরিবর্তিত হবে। একটি রাজ্যে যিনি সংখ্যাগরিষ্ঠ পপুলার ভোট পাবেন, কেবলমাত্র তিনি ওই রাজ্যের সবগুলো ডেলিগেট ভোট পেয়েছেন বলে ধরে নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মনোনয়ন নিয়ে আগে থেকেই বেশ সমালোচনা চলছে। বিশেষ করে মুসলিমদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করার কারণে ডোনাল্ড ট্রাম্প ব্যাপক সমালোচনার মধ্যে পড়েন। তিনি বলেছিলেন, ‘মুসলিমদের আমেরিকা হতে বের করে দেওয়া উচিত।’

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...