পিসি পুরনো হয়ে গেছে? পুরনো পিসির জন্য সেরা তিনটি লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে Windows 7 কিংবা Vista’র চেয়ে Windows 8 অনেক দ্রুতগতির একটি অপারেটিং সিস্টেম। এইযুগে মাত্র ১ জিবি র‍্যামেই উইন্ডোজ এইট খুব স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে আপনি চালাতে পারবেন। তবে অনেকেই এখনও পুরনো আমলের ৫১২ র‍্যামের পিসি ব্যবহার করেন, তাদের জন্য Windows Vista কিংবা 7, এইট চালানো দুরূহ ব্যাপার। তবে আপনি চাইলেই আপনার পুরনো পিসি দিয়ে আধুনিক ইন্টারনেটে তাল মেলাতে Windows থেকে Linux এ চলে আসতে পারেন। আসুন, এ বিষয়ে আজ আলোচনা করা যাক, কিভাবে আপনার পুরনো পিসিকে তিনটি Linux অপারেটিং সিস্টেমে পুনরুজ্জীবিত করবেন!


256151206_640

এই তিনটি Linux অপারেটিং সিস্টেম সম্পূর্ণ ফ্রী, কাজেই আপনাকে পাইরেসির ঝামেলায় যেতে হবে না। আর এগুলো লাইভ ইউএসবি/পেনড্রাইভ দিয়েই বুট করে নিতে পারবেন। আপনার ধীরগতির পিসির জন্য ইউএসবি/পেনড্রাইভ দিয়ে বুট করে লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করাটাই উত্তম হবে।

Puppy Linux

Puppy Linux তৈরী করা হয়েছে দ্রত কাজ করার জন্য। এটি যখন পেনড্রাইভে বুট করা হয়, মাত্র ১০০ মেগাবাইট জায়গা দখল করে নেবে! অবশ্য যদি আপনি ওপেন অফিস স্যুটসহ আরও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস নেন, তাও খুব বেশী হলে ২৫৬ মেগাবাইট জায়গা দখল করবে। Puppy Linux যখন পেনড্রাইভ থেকে পিসিতে বুট করবেন, এটি সরাসরি র‍্যামে লোড হয়ে যাবে এবং র‍্যাম থেকে পিসিতে চলবে, ফলে এটি খুব দ্রুত কাজ করবে। আপনার পিসি যতই পুরনো হোক কিংবা হার্ডডিস্ক যতই ধীরগতির হোক, এসব কোনো ব্যাপার হিসেবে ধরা দেবে না। এই লাইভ অপারেটিং সিস্টেমে আপনি আপনার যেকোনো ফাইলও সেভ করে রাখতে পারবেন।

Puppy Linux চালানোর জন্য আপনার মাত্র ১২৮ কিংবা ২৫৬ মেগার র‍্যাম হলেই চলবে! একদমই প্রয়োজনীয় কিছু এপ্লিকেশন দিয়ে সাজানো হয়েছে এই অপারেটিং সিস্টেমটি। ওয়েব ব্রাউজ করার জন্য আছে Dillo নামের একটি ব্রাউজার। অন্যান্য প্রোগ্রামগুলোর মাঝে আছে email client, media player, text editor, এবং image editor. এতে Openbox window manager নামের একটি ডিফল্ট প্রোগ্রাম ব্যবহার করা হয়।

puppy-linux4

VectorLinux Light

Vector Linux এর চেয়ে হালকা ভার্সন হচ্ছে VectorLinux Light। এই অপারেটিং সিস্টেমের ডেভেলপাররা বলেছেন এটি খুবই ভালো কাজ করবে ২৫৬ র‍্যামের পিসিগুলোতে। এতে যুক্ত আছে একটি গ্রাফিক্যাল ওয়েব ব্রাউজার। তবে পেন্টিয়াম থ্রি পিসিতে এটা ১২৮ মেগাবাইট র‍্যামেও চলতে পারবে। তবে এটি Puppy Linux এর মতো পেনড্রাইভে লাইভ চালানোর উপায় নেই। অপারেটিং সিস্টেমটি চালিয়ে দেখতে হলে আপনাকে অবশ্যই এটি হার্ডড্রাইভে ইন্সটল করে নিতে হবে।

এটি ইন্সটল করে নিলে অনেকটা Puppy Linux এর মতোই আবহ পাবেন। একদমই কিছু প্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম ছাড়া আর কিছু এতে দেয়া নেই। web browser, email client, chat program, text editor, এবং image editors পাবেন এতে। JWM window manager প্রোগ্রামটি এতে ডিফল্টভাবে ব্যবহার হয়।

Puppy Linux এবং VectorLinux মধ্যে তুলনা করলে আপনি Puppy Linux এই যেতে চাইবেন, কারণ এটি পেনড্রাইভ থেকেই চালানো যায় এবং যেখানে সেখানে যেকোনো পিসিতে চালিয়ে নিজের কাজ সেরে নিতে পারবেন আপনি।

vectorlinux-light

Lubuntu

Lubuntu প্রধানত Ubuntu বেইজ একটি অপারেটিং সিস্টেম। Ubuntu এর সকল সুবিধাই Lubuntuতে পাবেন। তবে Lubuntu এর ডেস্কটপ গ্রাফিক্যাল সৌন্দর্য আপনাকে মুগ্ধ করবে এবং এতে কিছু ডিফল্ট সফটওয়্যার ইন্সটল করা আছে যেগুলো আপনাকে চমৎকৃত করবে। LXDE প্রযুক্তি ব্যবহার করে এটিকে অত্যধিক হালকা করে তোলা হয়েছে, যা আপনার পিসিকে আরও দ্রুতগতি করে তুলবে। Ubuntu এর সকল সুবিধাই এতে আপনি পাবেন, এমনকি সফটওয়্যার সেন্টার থেকে সফটওয়্যারও ডাউনলোড করে ইন্সটল করতে পারবেন।

তবে এটি Puppy Linux কিংবা VectorLinux এর সাথে তুলনা করলে কিছুটা ভারীই বলা ঠিক হবে, কারণ এতে আপনি পাবেন গুগলের ক্রোমিয়াম ওয়েব ব্রাউজার এবং প্রয়োজনীয় কিছু ভারী সফটওয়্যার। যদিও বলা আছে যে ২৫৬ মেগাবাইট র‍্যামে এটি চলবে, তবে এর পূর্ণ সুবিধা ভোগ করতে চাইলে আপনাকে মিনিমাম ৫১২ মেগা র‍্যাম ব্যবহার করতে হবে। এছাড়াও এটি যখন পিসিতে ইন্সটল দেবেন কিছুটা বেশী জায়গাও নেবে।

Lubuntu প্রধানত বানানো হয়েছে Ubuntu ব্যবহারকারীদের লক্ষ্য করে, যারা Ubuntu’র সকল সুবিধা নিয়েই আরও হালকা অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে চায়।

lubuntu

যদি এই তিনটি অপারেটিং সিস্টেমের একটিও আপনার পিসিতে না চলে তাহলে বুঝতে হবে আপনার পিসি এই গ্রহের অনুপযুক্ত হয়ে পড়েছে। দ্রুত আপগ্রেড করে ফেলাটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

তথ্যসূত্রঃ How to Geek

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...