The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ফেসবুকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে কিছু টিপস (পর্ব-১)

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ সমগ্র পৃথিবীতে অসংখ্য ফেসবুক ব্যবিহারকারী রয়েছেন এদের সংখ্যা প্রায় ১২৬ কোটি! এতো বিপুল সংখ্যক ফেসবুক ব্যবহারকারীর মাঝে আপনিও একজন। যেহেতু ফেসবুকে প্রচুর ট্রাফিক সেহেতু এখানে একাউন্ট হ্যাক হওয়া সহ ব্যবহারকারীর নানান সমস্যা হতেই পারে। তাই আজ আপনাদের ফেসবুকে নিজেকে নিরাপদ রাখতেই কিছু টিপস নিয়ে ঢাকা টাইমসের আয়োজন।


Facebook Password

ফেসবুকে কিভাবে নিরাপদ থাকবেন সেটা জানার আগে চলুন একবার দেখে নিই ফেসবুকের ইতিবৃত্তঃ

ফেসবুকের বর্তমান সর্বমোট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১২৬ কোটি! এসব ব্যবহারকারী প্রতিদিন ২০০ বিলিয়ন পোস্ট আপডেট করে থাকে এসবের মাঝে ছবি এবং স্ট্যাটাস এবং ব্যক্তিগত বিষয় থাকে। ফেসবুক জানিয়েছে তাদের মোট ব্যবহারকারীর মাঝে ৭ শতাংশ ফেইক প্রোফাইল রয়েছে। ফেসবুকে প্রত্যেক ব্যবহারকারীর গড় বন্ধু সংখ্যা হচ্ছে ২৫০ জন।

এছাড়া প্রতিদিন ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মাঝে ১০১ মিলিয়ন ফেসবুক ব্যবহারকারী তাদের মোবাইল ডিভাইস দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করেন, ১২৮ মিলিয়ন ফেসবুক ব্যবহারকারী প্রতিদিন তাদের কম্পিউটার ডিভাইস দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন।

এবার চলুন জেনে নিই ফেসবুকে নিজের ব্যক্তিগত বিষয় শেয়ার করার বিষয়ে, ফেসবুকে টিনএজ ব্যবহারকারীদের ৫৫ শতাংশ তাদের ব্যক্তিগত বিষয়ে অপরিচিতদের সাথে শেয়ার করেন, ৬৭ শতাংশ টিনএজ ব্যবহারকারী জানেন তারা কিভাবে তাদের ফেসবুকে পরিচয় গোপন করবেন নিজেদের বাবা মার কাছ থেকে। ৩৪ শতাংশ বাবা মা তাদের সন্তানদের ফেসবুক ব্যবহারে কড়াকড়ি জারি করেন।

ফেসবুকে প্রতি ৪ জনের ১ জন কোন না কোন প্রতারণার শিকার হয়। এছাড়া প্রতি ৩৬ জনের একজন নিজেদের তথ্য এবং ছবি ফেসবুকে শেয়ারের কারণে চোরের দ্বারা কিছু না কিছু চুরির শিকার হয়েছেন।

এবার চলুন জেনি নি ফেসবুকে নিরাপদ থাকতে আপনাকে যা যা করতে হবেঃ

  • কখনোই klout.com কিংবা এর মত কোন সার্ভিস ফেসবুক লগ ইন করে ব্যবহার করবেন না। কারণ সেখানে আপনার নিরাপত্তা বিগ্নিত হতে পারে, সুতরাং যেখানে নিরাপত্তা নেই সেখানে ব্যবহার অপ্রয়োজনীয়।
  • কখনোই পাবলিক ভাবে অপ্রয়জনে লোকেশন শেয়ার করবেন না, এতে চোর কিংবা অন্য কারোর অনুসরণে নিজের অজান্তেই পড়ে যেতে পারেন।
  • কখনোই নিজের ইমোশনাল বিষয় সমূহ পাবলিক ভাবে শেয়ার করবেন না এতে অনেকেই আপনার সরলতার সুযোগ নিয়ে আপনাকে ব্ল্যাক মেইল করতে পারে।
  • কখনোই আপনার পারিবারিক ঠিকানা সম্পূর্ণ ফেসবুকে দিয়ে দিবেন না, কিংবা আপনার সকল মোবাইল নাম্বার এতে নানান সমস্যায় পড়তে পারেন।
  • ফেসবুক মোবাইল অ্যাপ ব্যবহারে সচেতন হউন কারণ এর মাধ্যমে আপনার একাউন্ট হ্যাক হতে পারে।
  • ব্যক্তিগত ছবি পাবলিক ভাবে শেয়ার করা থেকে বিরত থাকুন।
  • কখনোই অপরিচিত দের থেকে পাঠানো বন্ধু রিকোয়েস্ট হুট হাট না দেখেই গ্রহণ করবেন না। এটি আপনার সমস্যার কারণ হতে পারে।
  • সব সময় ক্ষুদ্র কিংবা সহজ পাস ওয়ার্ড ব্যবহার থেকে অবশ্যই বিরত থাকবেন এবং আপনার পাস ওয়ার্ড অবশ্যই বড় এবং সংখ্যা ও শব্দের মিশেলে দিবেন।

ফেসবুক নিরাপত্তা বিষয়ে আরও জানতে এখানে ক্লিক করুন।

সূত্রঃ makeuseof

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...