The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

যেভাবে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করবেন [টিউটোরিয়াল]

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ এর আগে ড্রাইভিং লাইসেন্স যেভাবে করবেন এ বিষয়ে আমাদের প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছিল। আমরা জানিয়ে ছিলাম আমরা আপনাদের জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার বিষয়ে আরেকটি প্রতিবেদন নিয়ে আসব। অনেকেই আছেন একবার ড্রাইভিং লাইসেন্স করার পর, তা আর নবায়ন করেন না। অথবা ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার বিষয়ে ধারনা নেই বলেই করেন না। আজ আমরা জানবো কিভাবে আপনি ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করবেন।


Florida-Driving-License-Renewal

আমাদের আগের পর্বে আপনারা জেনেছিলেন কিভাবে দুই ধরনের পেশাদার ও অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে হবে। তবে ড্রাইভিং লাইসেন্সের একটি মেয়াদ থাকে। সকল প্রকার অপেশাদার লাইসেন্স ১০ বছর ও পেশাদার লাইসেন্স পাঁচ বছর পর নবায়ন করাতে হয়। অন্যথায় ঐ লাইসেন্স দেরিতে নবায়নের ক্ষেত্রে বছর বছর আপনাকে বাড়তি জরিমানা দিতে হবে।

চলুন এবার জেনে নেয় যাক ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করতে আপনার যা যা লাগবেঃ

১) আপনার সদ্য তোলা স্ট্যাম্প সাইজের দুই কপি রঙিন ছবি
২) আপনার সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের এক কপি রঙিন ছবি
৩) আপনার যে ধরনের লাইসেন্স আছে অর্থাৎ যে ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করবেন তার দুটি ফটোকপি
৪) মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া লাইসেন্সের ফটোকপির লেমিনেটিং

এবার আপনাকে প্রথমে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স কোন ধরণের সে অনুযায়ী ফি বিআরটিএ নির্ধারিত পোস্ট অফিসে বা ব্যাংকে জমা দিতে হবে। ঢাকাবাসীর জন্য ব্যাংকের ক্ষেত্রে সাউথইস্ট ব্যাংকের ধানমন্ডি, সাত মসজিদ রোড, মোহাম্মদপুর, শ্যামলী, কারওয়ান বাজার, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, কাকরাইল, মৌচাক, গুলশান, উত্তরা, বনানী, মতিঝিলের (প্রধান শাখা) এবং করপোরেট যেকোনো শাখায় জমা দেয়া যেতে পারে। তবে জমা দেয়ার আগে বিআরটিএ অফিস থেকে তথ্য নিলে ভালো হয়। আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স যদি হয় অপেশাদার তবে আপনাকে নবায়ন ফি দিতে হবে ২,৩০০ (দুই হাজার তিনশ) টাকা। আর পেশাদার লাইসেন্স নবায়নের জন্য আপনাকে ফি দিতে হবে ১,৪৩৮ (এক হাজার চারশ আটত্রিশ) টাকা। সাথে মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে যত বছর পার হয়েছে তার প্রতি বছরের জন্য ১০০ টাকা করে জরিমানা দিতে হবে।

এবার টাকা জমা দেয়া হলে আপনি আপনার জেলার বিআরটিএ অফিস থেকে জেনে নিবেন আপনার টাকা আপনার লাইসেন্স নম্বরে জমা হয়েছে কিনা। সেখান থেকে আপনি একটি নবায়ন ফর্ম নিয়ে তাতে প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করে ছবি এবং বাদ বাকি জিনিস সংযুক্ত করে ফর্ম আবার জমা দেবেন। আপনাকে বিআরটিএ অফিস থেকে একটি তারিখে এসে নবায়ন হওয়া লাইসেন্স নিয়ে যাওয়ার কথা জানাবে।

এছাড়াও বিভিন্ন কারণে লাইসেন্স হারিয়ে গেলে বা পুড়ে গেলে সংশ্লিষ্ট থানায় সাধারণ ডায়েরি করতে হবে। দৈনিক পত্রিকাতেও একটি বিজ্ঞপ্তি দিতে হবে। বিজ্ঞপ্তি এবং ডায়েরির একটি করে সত্যায়িত কপি নিয়ে বিআরটিএ অফিস থেকে হারিয়ে যাওয়ার জন্য নির্ধারিত ফর্ম সংগ্রহ করতে হবে, এবং নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে ফর্মে ড্রাইভিং লাইসেন্সের সকল তথ্য পূরণ করে জমা দিতে হবে। সব কিছু ঠিক থাকলে আপনার নামে আপনার হারানো বা চুরি যাওয়া ড্রাইভিং লাইসেন্সের একটি প্রতিলিপি ইস্যু করা হবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...