The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

অস্ট্রেলিয়ান প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবট বলেছেন সংকেতগুলো নিখোঁজ বিমানেরই!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ চারিদিকে যখন মালয়েশিয়ান নিখোঁজ অভিশপ্ত বিমান এমএইচ ৩৭০ নিয়ে নানান হতাশা ঠিক সে সময়ে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবট বলছেন তাদের অনুসন্ধানী দল সাগরে নিখোঁজ বিমানের খুব কাছে পৌঁছে গেছে।


HMAS-Toowoomba-3399541

দক্ষিণ ভারত সাগরে অস্ট্রেলিয়ার উপকূল থেকে সাগরের গভীরে গত এক সপ্তাহ ধরে অস্ট্রেলিয়া, চীন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ অনুসন্ধানী দলের রাডারে পাওয়া যাচ্ছে এক বেতার সংকেত। গবেষকরা বলছেন এই সংকেতর নিখোঁজ মালয়েশিয়ান বিমানের। ফলে অনুসন্ধান আরও জোরালো করা হয়েছে সাগরের গভীরে। তবে সংকেতটি সাগরের এতোই গভীরে যে এটি ঠিক কোন অবস্থানে রয়েছে তার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতেই বেগ পেতে হচ্ছে অনুসন্ধানীদের।

HMAS-Success-3399539

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী বর্তমানে চীন সফরে রয়েছেন। গতকাল তিনি চীনের মিডিয়াকে জানিয়েছেন, “নিখোঁজ বিমানের সংকেত আমরা পেয়েছি। তবে সমুদ্রের অনেক গভীরে হওয়াতে ঠিক যায়গায় পৌছাতে পারা যাচ্ছেনা। একই সাথে উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে সংকেত দেয়া ব্ল্যাক বক্সের ব্যাটারির চার্জ কমে আসছে ফলে সংকেত এর তীব্রতাও কমে আসছে। এভাবে কতদিন যাবে বলা যাচ্ছেনা।”

ইতোমধ্যে অস্ট্রেলিয়ান জাহাজ ‘ওশেন শিল্ড’ মার্কিন প্রযুক্তি নিয়ে সমুদ্রে কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে যাচ্ছে। নিখোঁজ বিমানের ব্ল্যাক বক্স এর সংকেত নিশ্চিত করা গেলেও সমুদ্রের গভীরে রোবট পাঠাতে হলে সময় লাগবে ৪ দিন! এই সময়ের মাঝে যদি বিমানের ব্ল্যাক বক্স এর চার্জ শেষ হয়ে যায় তবে ঘটনা ভিন্ন দিকে মোড় নেবে।

উল্লেখ্য, নিখোঁজ বিমানের অনুসন্ধানে অস্ট্রেলিয়ার উদ্যোগের বিষয়ে সারা বিশ্ব প্রশংসা করছে। অস্ট্রেলিয়া গত কয়েকদিন দারুণ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বিমানের ব্ল্যাক বক্স খুঁজে পাওয়ার বিষয়ে অনুসন্ধানের ক্ষেত্রে। তবে শেষ পর্যন্ত যদি ব্ল্যাক বক্স পাওয়া না যায় তবে সম্পূর্ণ অভিযান ব্যর্থ হয়ে যাবে।

সূত্রঃ মীরর ইউকে

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...