কোটি রুপি আয় করা ‘ভাগ মিলকা ভাগ’ মুভির মিলকা সিং এর জীবন থেকে শিক্ষণীয় বিষয়!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বিখ্যাত পরিচালক রাকেশ ওম প্রকাশ মেহেরা পরিচালিত মুভি ‘ভাগ মিলকা ভাগ’| ইন্ডিয়ান অ্যাথলেট মিলকা সিং এর জীবনীর উপর ভিত্তি করে তৈরি এই বায়োগ্রাফিকাল মুভিটি মুক্তির প্রথম দিনেই আয় করেছেন সাড়ে আট কোটি রুপি। মিলকা সিং এর জীবনের বিভিন্ন বিষয় থেকে যেসব অনুপ্রেরণা পাওয়া যায় সে সম্পর্কে আজকে আপনাদের জানাব।


ei-158059-600x397

অনুপ্রেরণামূলক মুভিটিতে মিলকা সিং নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ফারহান আখতার, গুরুত্বপূর্ণ নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন বলিউড সুন্দরী অভিনেত্রী সোনম কাপুর। মুভিটি ১২ জুলাই গত শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে ১৫০০ টি থিয়েটারে। মুভিটি পাকিস্তানে নিষিদ্ধ হওয়ার কথাও শোনা গিয়েছিলো। এ প্রসঙ্গে দি ঢাকা টাইমস এর খবরটি জেনে নিন যার শিরোনাম হিন্দি ছবি ‘ভাগ মিলকা ভাগ’ পাকিস্তানে নিষিদ্ধ!

M_Id_397272_Milkha_Singh

ফ্লাইং সিং খ্যাত মিলকা সিং এর জীবনের সংগ্রাম, উত্থান পতন নিয়ে তৈরি মুভিটি হতে আমরা অনুপ্ররণা পেতে পারি। ভারত-পাক বিভাগের সময় পাকিস্তানে হওয়া দাঙ্গায় তার বাবা মাকে হারান। তার জীবনের দুঃখ কষ্ট, প্রতিযোগিতা, জয়ের গৌরবময় মুহুর্ত চিত্রিত হওয়া মুভি এবং মিলকা সিং এর জীবন থেকে যে পাচটি অনুপ্রেরণার শিক্ষা আছে তা সম্পর্কে আলোকপাত করা হলো।

১)এগিয়ে যাওয়ার মনোবলঃ যেকোন মানুষের জীবনে যেকোন সময়েই শোকাবহ ঘটনা ঘটতে পারে কিন্তু মিলকা সিং এর জীবনে ঘটেছে অনেক ছোটবেলাতেই, ভারত ভাগের সময় দাঙ্গাতে তার বাবা – মা মারা যায়। এত ভয়াবহ ক্ষত নিয়ে, বাবা মা হারানোর দুঃখ সামলে জীবনে এগিয়ে গেছেন, হয়েছেন ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাথলেটদের একজন।

২)সফল না পর্যন্ত চেষ্টা করাঃ নিজের জীবনের লক্ষ্য পর্যন্ত পৌছাইতে কোথাও থেমে যাওয়া যাবে না- মিলকা সিং এর জীবন আমাদের এই শিক্ষা দেয়। এই অ্যাথলেট যখন বড় হলেন তখন সে ইন্ডিয়ান আর্মিতে জয়েন করার ইচ্ছে পোষণ করেছিলেন, পর পর তিনবার রিজেক্ট হয়েছিলেন তিনি। চতূর্থবারের চেষ্টায় ইন্ডিয়ান আর্মিতে জয়েন করতে সক্ষম হন তিনি।

৩)কঠোর পরিশ্রম করাঃ জীবনে সাফল্য পেতে, লক্ষ্যে পৌছাতে নিজের কাজগুলো করতে সর্বোচ্চ পরিশ্রম করতে হয়, মিলকা সিং তাই করেছেন। তিনি বেস্ট স্প্রিন্টার হতে প্রতিদিন পাঁচ ঘন্টা করে প্রচন্ড চাপের ট্রেইনিং করতেন। দৌড়াতেন পাহাড়ে, ইয়ামুনার বালিতে এমনকি মিটার গজ ট্রেইনের গতির বিপরীতেও দৌড়াতেন। তীব্র প্রশিক্ষণের ফলে তার রক্ত বমি হতো এবং মাঝে মাঝে অবসাদে আক্রান্ত হতেন।

৪)নিজের সাফল্যে আত্মতুষ্টিতে না ভোগাঃ মিলকা সিং তার অংশগ্রহণ করা ৮০ টি রেসের মধ্যে ৭৭ টি জিতেছেন, নিজের জয়ে আত্মতুষ্টিতে ভুগলে এত সাফল্যের মুকুট পড়তে পারতেন না। কমওয়েলথ গেমস হোক বা এশিয়ান গেমস প্রতিযোগিতা হোক সব রেসেই তিনি জিতেন এবং প্রতিদিনই পরবর্তী রেসে জিতার জন্য নিজেকে তৈরি করেন।

৫)জয় মেডেলের চেয়েও বড়ঃ মিলকা সিং প্রতিটা রেসে জিতে যে মেডেল পেয়েছেন তা নিজের কাছে রাখেন নি, জওহরলাল নেহ্‌রু ইউনিভার্সিটিতে দান করে দিয়েছেন। অন্য কোন অ্যাথলেট সচরাচর নিজের লিভিং রুম ট্রফি এবং মেডেল দিয়ে সাজিয়ে রাখে, কিন্তু মিলকা সিং এর এই লোভ ছিলো না, বরঙ তিনি তার খ্যাতি, স্কুলের বই এ তার নাম এবং বর্তমানের ছবি নিয়েই সন্তুষ্ট।

inspiring_lessons_from_milkha_singhs_life_5_1373694968

মিলকা সিং এর প্রাপ্ত ‘পদ্মশ্রী পুরষ্কার’ সবার জন্যই অনুপ্রেরণামূলক এবং উপরোক্ত পাঁচটি শিক্ষা গ্রহণ থেকে যেকোন মানুষ তার জীবন পরিবর্তন করতে পারবে।

তথ্যসূত্রঃ ইন্ডিয়া টাইমস

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...