The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আপনার স্মার্টফোনে ছবি তুলে টাকা আয় করতে পারেন যেভাবে!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ স্মার্টফোনে ছবি তুলে, সেই ছবি আবার বিক্রি করে আয় করা যায়। ফোয়াপ নামের একটি অ্যান্ড্রয়েড ও আইটিউন্স অ্যাপ দ্বারা ব্যবহারকারীরা ছবি তুলে আয় করতে পারবেন।


foap_closed_19_oct

যুক্তরাষ্ট্রের ডিয়ানা ভ্যালোরোজ জানেন তার স্মার্টফোনের প্রতিটি ক্লিক মানেই আয়। তিনি ৬৮টি ছবি বিক্রি করে তিনশ ডলার আয় করেছেন। ছবিগুলো ছিল সকালের নাস্তা থেকে বিকেলের খেলাধুলা কিংবা প্রকৃতির নানা বৈচিত্রময় ছবি। সবগুলো ছবিই তিনি তুলেছেন ফোয়াপ অ্যাপ ব্যবহার করে। অ্যাপটি ছবিগুলো বিক্রি করে বড় ধরনের কোম্পানীর বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে যেমন মাস্টারকার্ড, পুমা ইত্যাদি। প্রতিটি ছবি বিক্রি করা হয় ১০ ডলার বা ৮০০ টাকা। ব্যবহারকারী পায় ৫ ডলার এবং ফোয়াপ কোম্পানি পায় ৫ ডলার।

foap-app-screens

ফোয়াপের এই ব্যবসাটি বেশ চমৎকারভাবে দাড়িয়ে গিয়েছে কারণ এটি সবচেয়ে কম খরচে একটি ছবির স্টক থেকে ছবি ক্রয়ের মাধ্যম। যেখানে পেশাদার কিংবা অপেশাদাররা সুন্দর কিছু ছবি উপহার দিচ্ছে। ফোয়াপ কর্তৃপক্ষ বলেন তাদের ব্যবহারকারীর অর্ধেক ছবি জমা দিচ্ছে এখানে আর অর্ধেক সেই ছবিগুলোর রেঙ্কিং করছে। ব্যবহারকারী ভিত্তিক এই অ্যাপটি ফটোস্টকের ২৫ ভাগ কিনে নিয়েছে। যা ফটোস্টকের ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বাজারমূল্যের মোট আর্থিক দিকের প্রায় চারভাগের একভাগ। বর্তমানে অ্যাপটি প্রতিযোগিতা করছে আইস্টক, গেটি এবং অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের মতো বড় বড় কোম্পানির সাথে।

Eggs_of_many_colors_stock_photo_-_Foap_-_2014-03-14_23.43.52

ক্যালিফোর্নিয়ার বাসিন্দা ডাইয়াম প্রায় ৪০০০ ডলার ইতিমধ্যে আয় করেছেন এখানে ছবি জমা দিয়ে। তিনি গত বছর ফোয়াপে প্রতিযোগিতা করে জিতেছেন। সনি এবং মাস্টারকার্ড তার ছবিগুলো কিনে নিয়েছে। হেইকিন তার একটি ছবি ১০০ ডলার দিয়ে কিনে নিয়েছে। অ্যাডাম হেমিল্টন নামের ৪২ বছর বয়সী একজন যুক্তরাজ্যবাসীর ছবি ৫০০ ডলার দিয়ে কিনে নিয়েছে মাস্টারকার্ড। হেমিল্টনের আরেকটি ছবি পুমা কিনে নিয়েছে ২০০০ ডলার দিয়ে। বেশি দামী ছবিগুলোর জন্য বড় কোম্পানিরা ফোয়াপে প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে।

ভিডিও দেখুন

আর দেরি না করে ফোয়াপ ইন্সটল করতে লগইন করুন ফোয়াপ.কম

তথ্যসূত্রঃ এবিসি

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...